রিয়েলমি ওয়াচ এস : থাকবে আউটডোর- ইনডোরের স্পোর্টস মনিটরিং

রিয়েলমি ওয়াচ এস-এ আউটডোর ও ইনডোরে দৌড়ানো, হাঁটাহাঁটি, সাইক্লিং, ফুটবল, টেবিল টেনিস, ব্যাডমিন্টন, যোগব্যায়াম, ক্রিকেটসহ ১৬ ধরনের স্পোর্টস মনিটরিং করতে সাহায্য করে। এ স্মার্টওয়াচে গুডিক্স-এর অপটিকাল পিপিজি হার্ট রেট সেন্সর ব্যবহার করা হয়েছে, যা নির্ভুলভাবে ২৪ ঘণ্টা ননস্টপ হার্ট রেট মনিটরিং করে। ৩৯০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি, লাইটিং ফাস্ট সেন্সর এবং প্রসেসর থাকার কারণে একবার সম্পূর্ণ চার্জে রিয়েলমি ওয়াচ-এস ১৫ দিন পর্যন্ত চলতে পারে। এ ছাড়া আইপি৬৮ রেটিং থাকায় স্মার্টওয়াচটি ১.৫ মিটার পর্যন্ত ওয়াটার রেজিস্টেন্ট।

অটো ব্রাইটনেস টাচস্ক্রিন, রিয়েল টাইম হার্ট এবং অক্সিজেন মনিটর, বিশাল ব্যাটারি লাইফ, স্মার্ট নোটিফিকেশন সুবিধাযুক্ত এই স্মার্টওয়াচ আছে ৩.৩ সেন্টিমিটারের (১.৩-ইঞ্চি) স্মার্ট ডিসপ্লে। ৬০০ নিটস পর্যন্ত পৌঁছতে পারে, ফলে ঘড়ির সব ফিচার প্রচণ্ড সূর্যালোকেও দৃশ্যমান থাকে। ম্যাগনেটিক চার্জিং কেসের মাধ্যমে মাত্র দুই ঘণ্টার মধ্যে এই ঘড়িটি শতভাগ চার্জ হয়।

রিয়েলমি ওয়াচ এস স্মার্ট তরুণদের দেবে প্রিমিয়াম ফিল, কারণ এতে ব্যবহার করা হয়েছে এক্সক্লুসিভ ৬০৬৩ অ্যালুমিনিয়াম অ্যালয়, যার ফলে এটি একই সঙ্গে টেকসই ও হালকা। স্ট্র্যাপটি হাই-এন্ড লিকুইড সিলিকন দিয়ে তৈরি যা হালকা ও ত্বক-বান্ধব। সবার পোশাক বা নিজস্ব পছন্দের সঙ্গে খাপ খাইয়ে নিতে কালো, নীল, কমলা ও সবুজ—এই চারটি ভিন্ন রঙের স্ট্র্যাপ আছে।

স্মার্টওয়াচটিতে গান পরিবর্তন এবং দূর থেকে ফটো ক্লিক করার সুযোগ রয়েছে। এ ছাড়া রিয়েলমি ওয়াচ এস-এ ১০০টিরও বেশি ওয়াচ ফেস রয়েছে যা ব্যবহারকারীকে সবসময় ট্রেন্ডি থাকতে সাহায্য করবে। রিয়েলমি ওয়াচ এস রিয়েল টাইমে নির্ভুলতার সঙ্গে রক্তে অক্সিজেনের পরিমাণ মনিটর করতে পারে। তা ছাড়া হার্ট রেটে কোনো অনিয়ম থাকলে তা-ও স্বয়ংক্রিয়ভাবে বলে দেয়।

সূত্র: জিএসম্যারিনা

Post Your Comment Here

Your email address will not be published. Required fields are marked *